News

সময়মত ফ্ল্যাট হস্তান্তর করে আল-আকসার দৃষ্টান্ত স্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী সংবাদ: রাজশাহীর অন্যতম ডেভেলপার কোম্পানীর মধ্যে আল আকসা কোম্পানী লিমিটেড। প্রায় এক দশক ধরে ঢাকা থেকে শুরু করে গ্রীণ সিটি রাজশাহীতে বহুতল ভবন নির্মাণ করে যাচ্ছে আল আকসা ডেভেলপার কোম্পানী লিমিটেড। শুরুতে এর প্রসার সীমিত আকারে হলেও এখন আল আকসার পরিধি বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েকগুণ। সময়মত ফ্ল্যাট হস্তান্তর করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এ কোম্পানীটি। মুল নগরীর বিভিন্ন জায়গায় বহুতল ভবন নির্মাণ করছে এ প্রতিষ্ঠান। রাজশাহীতে এখন পর্যন্ত আল আকসা কোম্পানীর ভবন তুলনামুলক অনেকটাই বেশি। এছাড়াও আগামী ৫বছর পর রাজশাহীতে ৫০তলা ভবন নির্মাণ হবে এ কোম্পানী থেকে। রাজশাহী নগরীতে কমার্সিয়াল কাম রেসিডিয়েনশিয়াল ভবন নির্মাণে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে আল আকসা ডেভেলপার কোম্পানী লিমিটেড। আল আকসার পক্ষে নগরীর মধ্যে বিভিন্ন স্থানে ১০টিরও বেশি ভবন নির্মাণ কাজ চলছে। এসব কাজ খুব দ্রুত শেষ হবে এমনটাও আশা করছে আল আকসা কর্তৃপক্ষ।

আল আকসা কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও রিয়েল এস্টেট এন্ড ডেভেলপার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান কাজি বলেন, আমরা ভাল কাজের সাথে সব সময়। এ কোম্পানী থেকে পছন্দ অপছন্দের উপর গুরুত্ব দেয়া হয় বেশি। একজন ক্রেতা অনেক কষ্ট করে তার অর্জিত আয় দিয়ে স্বপ্নের ফ্ল্যাট কেনার চিন্তা করেন। তিনি অবশ্যই মানসম্মত ফ্ল্যাট নেয়ার চিন্তা করবেন। যা স্বাভাবিক। ক্রেতাদের এ চাহিদার দিকে আল আকসা সব সময় নজর দেয়। ক্রেতার চাহিদার গুরুত্ব আল আকসার কাছে বেশি। ক্রেতা আল আকসা থেকে ফ্ল্যাট নিলে তাকে সময় মত ও মানসম্মত ফ্ল্যাট বুঝিয়ে দিতে আমরা বদ্ধ পরিকর। আর এ বিষয়টি মাথায় রেখে আল আকসা ব্যবসায়ীক পরিকল্পনা করে থাকে। বিশেষ করে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ফ্ল্যাট হস্তান্তর করা হয়।

তিনি বলেন, রাজশাহীর মানুষের আয় কম। যার কারণে তাদের স্বপ্ন থাকলেও বাস্তবায়ন করতে পারে না। এ স্বপ্ন পুরণ করার জন্য আল আকসা কাজ শুরু করেছে। স্বল্প আয়ের মানুষ যেনো অল্প টাকায় ফ্ল্যাটের মালিক হন সে বিষয়টি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে আল আকসা সাধারণ আয়ের এসব মানুষের জন্য ফ্ল্যাট তৈরি করার সব প্রস্তুতি শেষ করেছে। সেই দিন হয় তো বেশি দুর নয়, যখন একজন মধ্যবিত্ত পরিবারও মাত্র ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকায় একটি গর্বিত ফ্ল্যাটের মালিক হওয়ার গৌরব অর্জন করবে। তিনি বলেন, বর্তমান নগর পিতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এ নগরীকে নির্মল বাতাসের নগরীতে পরিণত করেছেন। এবার তিনি রাজশাহীকে পর্যটন নগরী হিসাবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। রাসিক মেয়রের এ স্বপ্ন পুরণে কাজ করছে আল আকসা। কারণ মেয়রের ভাবনাটা সুদুর প্রসারী। যার কারণে আল আকসা মেয়রের এ ভাল কাজের উদ্যোগকে স্বাদরে গ্রহণ করে তার সাথে নগরী সাজানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন, রাসিক, আরডিএ ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি। কারণ তাদের প্রচেষ্টায় আজ আমরা এতোদুর আসতে পেরেছি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

সংগ্রাহ রাজশাহী সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *